০৩:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গা মাথাভাঙ্গা ব্রিজ সংলগ্ন প্রধান সড়কের উপর দিনে দুপুরে চলছে লাঠিয়াল বাহিনীর চাঁদাাবজি! দেখার কেউ নেই জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ।

  • Update Time : ১১:১৭:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ অগাস্ট ২০১৯
  • ২৩৩ Time View

চুয়াডাঙ্গা মাথাভাঙ্গা ব্রিজ সংলগ্ন প্রধান সড়কের উপর দিনে দুপুরে চলছে লাঠিয়াল বাহিনীর চাঁদাাবজি!
দেখার কেউ নেই জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ।

শাপলা নিউজ ডেস্ক : চুয়াডাঙ্গা দৌলৎদিয়াড় (মাথাভাংগা ব্রীজ সংলগ্ন)। অনেক বছর থেকে এই লাঠিয়াল বাহিনী রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থেকে অটো নসিমন করিমন নিয়ন্ত্রণ করে এবং নিয়মিত চাঁদা আদায় করে অটো ড্রাইভারদের কাছ থেকে। যদি অটো,নছিমন, করিমন এসকল যানবাহন অবৈধ হয় তাহলে প্রশাসন দিয়ে বন্ধ করাই ভাল বলে মনে করেন এসকল পরিবহনের যাত্রীগন। তারা বলেন আইন না মানলে এদের বিরুদ্ধ কঠোর ব্যবস্থা হোক কিন্তূ এই ডাকাত রা রাস্তায় লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে, খুব ভয় লাগে বাজে ভাষা ব্যাবহার করে, পরিবার নিয়ে চলতে গেলে খুব বিব্রত হতে হয়।গাড়ি তে থাকা বাচ্চারা এবং মেয়েরা খুব ভয় পায়। আইনের লোকজন ছাড়া এভাবে কেউ রাস্তার উপর নিজেই আইন তৈরি করে লাঠি হাতে নিজেই দাঁড়িয়ে থেকে আইন মানানোর জন্য বাধ্য করাতে পারে কিনা?এই বিষয়ে মাননীয় জেলা প্রশাসকের নিকট বিনীত অনুরোধ, স্যার আপনারা বিষয়টি ভেবে দেখবেন এবং আমাদের একটা সমাধান দিবেন।

Tag :
জনপ্রিয়

সব বাবাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

চুয়াডাঙ্গা মাথাভাঙ্গা ব্রিজ সংলগ্ন প্রধান সড়কের উপর দিনে দুপুরে চলছে লাঠিয়াল বাহিনীর চাঁদাাবজি! দেখার কেউ নেই জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ।

Update Time : ১১:১৭:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ অগাস্ট ২০১৯

চুয়াডাঙ্গা মাথাভাঙ্গা ব্রিজ সংলগ্ন প্রধান সড়কের উপর দিনে দুপুরে চলছে লাঠিয়াল বাহিনীর চাঁদাাবজি!
দেখার কেউ নেই জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ।

শাপলা নিউজ ডেস্ক : চুয়াডাঙ্গা দৌলৎদিয়াড় (মাথাভাংগা ব্রীজ সংলগ্ন)। অনেক বছর থেকে এই লাঠিয়াল বাহিনী রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থেকে অটো নসিমন করিমন নিয়ন্ত্রণ করে এবং নিয়মিত চাঁদা আদায় করে অটো ড্রাইভারদের কাছ থেকে। যদি অটো,নছিমন, করিমন এসকল যানবাহন অবৈধ হয় তাহলে প্রশাসন দিয়ে বন্ধ করাই ভাল বলে মনে করেন এসকল পরিবহনের যাত্রীগন। তারা বলেন আইন না মানলে এদের বিরুদ্ধ কঠোর ব্যবস্থা হোক কিন্তূ এই ডাকাত রা রাস্তায় লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে, খুব ভয় লাগে বাজে ভাষা ব্যাবহার করে, পরিবার নিয়ে চলতে গেলে খুব বিব্রত হতে হয়।গাড়ি তে থাকা বাচ্চারা এবং মেয়েরা খুব ভয় পায়। আইনের লোকজন ছাড়া এভাবে কেউ রাস্তার উপর নিজেই আইন তৈরি করে লাঠি হাতে নিজেই দাঁড়িয়ে থেকে আইন মানানোর জন্য বাধ্য করাতে পারে কিনা?এই বিষয়ে মাননীয় জেলা প্রশাসকের নিকট বিনীত অনুরোধ, স্যার আপনারা বিষয়টি ভেবে দেখবেন এবং আমাদের একটা সমাধান দিবেন।