০২:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বজ্রপাতে আহাম্মদ মল্লিক (৬৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১১ মে) সকাল ৯টার দিকে পাটাচোরা মাঠে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত কৃষক আহাম্মদ মল্লিক উপজেলার পাটাচোরা গ্রামের মৃত খেদের মল্লিকের ছেলে।

দামুড়হুদা সদর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার পাটাচোরা গ্রামের কুতুব উদ্দীন জানান, সকাল ৯টার দিকে বজ্রসহ বৃষ্টি শুরুর সময় মাঠে কাজ করছিলেন আহাম্মদ মল্লিক। বজ্রপাত শুরু হলে তিনি বাড়ির পথে রওয়ানা দেন। তবে মাঠের রাস্তায় বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইনচার্জ (স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা) ডা. হেলেনা আক্তার নিপা জানান, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই বজ্রপাতে আহত কৃষক আহাম্মদ মল্লিক মারা যায়।

দামড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবির জানান- নিহতের পরিবার লিখিত আবেদনের করায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের যৌথ বিশেষ মহড়া অনুষ্ঠিত

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

Update Time : ০৯:৫৭:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বজ্রপাতে আহাম্মদ মল্লিক (৬৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১১ মে) সকাল ৯টার দিকে পাটাচোরা মাঠে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত কৃষক আহাম্মদ মল্লিক উপজেলার পাটাচোরা গ্রামের মৃত খেদের মল্লিকের ছেলে।

দামুড়হুদা সদর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার পাটাচোরা গ্রামের কুতুব উদ্দীন জানান, সকাল ৯টার দিকে বজ্রসহ বৃষ্টি শুরুর সময় মাঠে কাজ করছিলেন আহাম্মদ মল্লিক। বজ্রপাত শুরু হলে তিনি বাড়ির পথে রওয়ানা দেন। তবে মাঠের রাস্তায় বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইনচার্জ (স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা) ডা. হেলেনা আক্তার নিপা জানান, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই বজ্রপাতে আহত কৃষক আহাম্মদ মল্লিক মারা যায়।

দামড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবির জানান- নিহতের পরিবার লিখিত আবেদনের করায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।