০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাগরপুরে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের দেওয়া ঘর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

  • Update Time : ০২:৩৯:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০
  • ৪৮ Time View

নাগরপুরে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের দেওয়া ঘর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

সোলায়মান,নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ
মুজিববর্ষের প্রথমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষনা দিয়েছিলেন দেশে কোন পরিবার গৃহহীন থাকবে না । ঘোষনাকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি অর্থের পাশাপাশি প্রকল্পের সাথে মন্ত্রিপরিষদের সচিববৃন্দ একাত্মতা ঘোষনা করেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশের সকল সচিবের প্রত্যেকে তার স্ব স্ব উপজেলায় গৃহহীন ২টি পরিবারকে একটি ঘর করে দিবেন।
বর্তমান সরকারের মন্ত্রী পরিষদের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম তার নিজস্ব অর্থায়নে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার মোকনা ইউনিয়নের কোনড়া গ্রামের অসহায় গৃহহীন ইয়াকুব ও লিপু মিয়ার পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার কাজ শুরু করেছেন। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকালে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি ঘর নির্মাণের কাজ পরিদর্শন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নাগরপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক, পাকুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান ছিদ্দিক, খন্দকার হুমায়ুন কবীর।
গৃহনির্মাণ কাজের অগ্রগতি দেখতে এসে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি বলেন, মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার গৃহহীন থাকবে না কোন পরিবার। ইতিমধ্যে নাগরপুর ও মির্জাপুরের দুই সচিব মহোদয় তাদের নিজস্ব অর্থায়নে নিজ নিজ এলাকায় ২টি গৃহহীন পরিবারকে ১টি করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, টাঙ্গাইল জেলায় প্রধানমন্ত্রী সরকারি অর্থে ৫৬৪টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিচ্ছেন। এছাড়া বেসরকারি ভাবে জেলা আওয়ামী লীগের সহায়তায় ৫০টি, স্থানীয় এমপি, ধনাঢ্য ব্যক্তি, জেলা- উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় আমরা আরো ১৪৮টি ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়েছি। ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসকের পক্ষে থেকে করটিয়ায় দোলনা বেগম নামে এক গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি টাঙ্গাইল জেলায় গৃহহীনদের ঘর করে দেওয়াটা একটি সামাজিক আন্দোলনে রুপান্তরিত হয়েছে।

Tag :
জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গায় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ ২০২৪ এর উদ্বোধন

নাগরপুরে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের দেওয়া ঘর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

Update Time : ০২:৩৯:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০

নাগরপুরে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের দেওয়া ঘর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

সোলায়মান,নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ
মুজিববর্ষের প্রথমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষনা দিয়েছিলেন দেশে কোন পরিবার গৃহহীন থাকবে না । ঘোষনাকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি অর্থের পাশাপাশি প্রকল্পের সাথে মন্ত্রিপরিষদের সচিববৃন্দ একাত্মতা ঘোষনা করেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশের সকল সচিবের প্রত্যেকে তার স্ব স্ব উপজেলায় গৃহহীন ২টি পরিবারকে একটি ঘর করে দিবেন।
বর্তমান সরকারের মন্ত্রী পরিষদের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম তার নিজস্ব অর্থায়নে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার মোকনা ইউনিয়নের কোনড়া গ্রামের অসহায় গৃহহীন ইয়াকুব ও লিপু মিয়ার পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার কাজ শুরু করেছেন। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকালে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি ঘর নির্মাণের কাজ পরিদর্শন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নাগরপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক, পাকুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান ছিদ্দিক, খন্দকার হুমায়ুন কবীর।
গৃহনির্মাণ কাজের অগ্রগতি দেখতে এসে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি বলেন, মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার গৃহহীন থাকবে না কোন পরিবার। ইতিমধ্যে নাগরপুর ও মির্জাপুরের দুই সচিব মহোদয় তাদের নিজস্ব অর্থায়নে নিজ নিজ এলাকায় ২টি গৃহহীন পরিবারকে ১টি করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, টাঙ্গাইল জেলায় প্রধানমন্ত্রী সরকারি অর্থে ৫৬৪টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিচ্ছেন। এছাড়া বেসরকারি ভাবে জেলা আওয়ামী লীগের সহায়তায় ৫০টি, স্থানীয় এমপি, ধনাঢ্য ব্যক্তি, জেলা- উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় আমরা আরো ১৪৮টি ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়েছি। ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসকের পক্ষে থেকে করটিয়ায় দোলনা বেগম নামে এক গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি টাঙ্গাইল জেলায় গৃহহীনদের ঘর করে দেওয়াটা একটি সামাজিক আন্দোলনে রুপান্তরিত হয়েছে।