০২:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গায় ৬ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশি চাচা আটক

  • এন এইচ শাওন
  • Update Time : ০৬:০০:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
  • ১১৮ Time View

 

চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় ৬ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশি চাচা হামজারুলকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৩) মে বিকেল ৩ টার দিকে বাড়ির পাশ্ববর্তি মাঠের ঘাসের জমিতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে বলে জানায় শিশুটির পরিবার। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপতালের কর্তব্যরত ডাক্তার চিকিৎসা না করে আলমডাঙ্গা থানায় পাঠিয়ে দেয়। এবিষয়ে রাতে আলমডাঙ্গা থানায় শিশুটির পিতা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ দায়েরের পর আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ অভিযুক্ত হামজারুলকে আটক করে নিয়ে আসে।

ধর্ষণের অভিযোগে আটক হামজারুল ইসলাম (১৮) উপজেলার ওসমানপুর দক্ষিণপাড়ার জহুরুল ইসলামের ছেলে। হামজারুল এক সময় হেফজখানায় থেকে লেখাপড়া করত। সে এখন আর লেখাপড়া করে না। ঘটনার পর পরই হামজারুল পালিয়ে যায়। পরে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে ।

শিশুটির পিতা ফারুক শেখ জানায়, আমি গরিব মানুষ। পাখি ভ্যান চালিয়ে সংসার চালায়। আমার এক ছেলে এক মেয়ে। মেয়েটি ছোট। সে ওসমানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেনীর ছাত্রী। প্রতিবেশী জহুরুলের একটি মেয়ে আছে তার সাথে আমার মেয়ে খেলাধুলা করে। বৃহস্পতিবার বিকালের আমার মেয়ের সাথে অভিযুক্ত হামজারুলের বোন খেলা করছিল। হামজারুল আমার মেয়েকে ডেকে বাড়ির পাশে ঘাসের জমিতে নিয়ে যায়। সেখানে জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় আমার মেয়ে কান্না করতে করতে বাড়িতে এসে সব খুলে বলে। আমরা তাকে দ্রæত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালের ডাক্তারা বলে এটা পুলিশ কেস। আপনারা আগে থানায় যান। পরে আমরা থানা এসে ওসি সাহেবের নিকট ঘটনা খুলে বলি।

আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ গণি মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ধর্ষণের ঘটনায় শিশুটি পিতা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।

ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের যৌথ বিশেষ মহড়া অনুষ্ঠিত

আলমডাঙ্গায় ৬ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশি চাচা আটক

Update Time : ০৬:০০:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

 

চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় ৬ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশি চাচা হামজারুলকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৩) মে বিকেল ৩ টার দিকে বাড়ির পাশ্ববর্তি মাঠের ঘাসের জমিতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে বলে জানায় শিশুটির পরিবার। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপতালের কর্তব্যরত ডাক্তার চিকিৎসা না করে আলমডাঙ্গা থানায় পাঠিয়ে দেয়। এবিষয়ে রাতে আলমডাঙ্গা থানায় শিশুটির পিতা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ দায়েরের পর আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ অভিযুক্ত হামজারুলকে আটক করে নিয়ে আসে।

ধর্ষণের অভিযোগে আটক হামজারুল ইসলাম (১৮) উপজেলার ওসমানপুর দক্ষিণপাড়ার জহুরুল ইসলামের ছেলে। হামজারুল এক সময় হেফজখানায় থেকে লেখাপড়া করত। সে এখন আর লেখাপড়া করে না। ঘটনার পর পরই হামজারুল পালিয়ে যায়। পরে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে ।

শিশুটির পিতা ফারুক শেখ জানায়, আমি গরিব মানুষ। পাখি ভ্যান চালিয়ে সংসার চালায়। আমার এক ছেলে এক মেয়ে। মেয়েটি ছোট। সে ওসমানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেনীর ছাত্রী। প্রতিবেশী জহুরুলের একটি মেয়ে আছে তার সাথে আমার মেয়ে খেলাধুলা করে। বৃহস্পতিবার বিকালের আমার মেয়ের সাথে অভিযুক্ত হামজারুলের বোন খেলা করছিল। হামজারুল আমার মেয়েকে ডেকে বাড়ির পাশে ঘাসের জমিতে নিয়ে যায়। সেখানে জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় আমার মেয়ে কান্না করতে করতে বাড়িতে এসে সব খুলে বলে। আমরা তাকে দ্রæত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালের ডাক্তারা বলে এটা পুলিশ কেস। আপনারা আগে থানায় যান। পরে আমরা থানা এসে ওসি সাহেবের নিকট ঘটনা খুলে বলি।

আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ গণি মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ধর্ষণের ঘটনায় শিশুটি পিতা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।