০১:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় আওয়ামী লীগ নেতা দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর।

  • MD Abdulla Haq
  • Update Time : ০৭:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২৩
  • ৮৪ Time View

নিজস্ব সংবাদদাতা:চুয়াডাঙ্গায় দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করা হয়েছে। রোববার (২৬ নভেম্বর) রাতে চুয়াডাঙ্গা সদরের আলমডাঙ্গার মমিনপুর, কবিখালী ও ডাউকিতে পৃথক স্থানে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় ৯ নেতাকর্মীর বাড়ি, অফিস ও প্রতিষ্ঠানে হামলার খবর পাওয়া গেছে।হামলার শিকার নেতা-কর্মীদের অভিযোগ, দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য উপ-কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে প্রচারণা চালিয়েছেন তারা।রোববার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চূড়ান্ত করার পর এ হামলার ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। র‌্যাবের টহল রয়েছে।জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার মমিনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও কৃষক লীগের নেতা গোলাম ফারুক জোয়ার্দারের বাড়িতে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা বাড়িতে ইট-পাথর ছুড়ে কয়েকটি চেয়ার ও টেবিল ভেঙে ফেলে। ঘটনার সময় গোলাম ফারুক জোয়ারদার বাড়িতে ছিলেন না। এ সময় তার স্ত্রী নজু বেগম ও গৃহকর্মী আকাশ হোসেন বাড়িতে ছিলেন।গোলাম ফারুক জোয়ারদার অভিযোগ করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা-১ (আলমডাঙ্গা-সদর বিভাগ) আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য উপ-কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছিলাম।এ জন্য আমার বাড়িতে ও অফিসে হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা অনেক চেয়ার ভাংচুর করে। বাড়িতে তার রাগ ছিল। নব্য আওয়ামী লীগের লোকজন এ হামলা করেছে।এদিকে সন্ধ্যা ৭টার দিকে কবিখালী গ্রামে হুমায়নের বাড়িতেও হামলার খবর পাওয়া গেছে। কয়েকজন যুবক মোটরসাইকেলে তার বাড়ির সামনে গিয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। চেয়ার ভাঙা এবং টিন বন্ধ প্রস্রাব. হুমায়ন মমিনপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি মো. তিনি দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকও।এ ছাড়া মহসিনের ওষুধের দোকান, সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য, আলমডাঙ্গা উপজেলার ডাউকি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম দিপু, ৪ নম্বর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জয়, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. ইউনিয়ন সৈয়দ ও বায়তুল, সিরাজুল ইসলাম, একই উপজেলার বেলগাছি মো. ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য শাহাদাত হোসেনের বাড়িতে হামলা হয়েছে।

ডাউকি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম দিপু বলেন, ‘আমি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা। প্রার্থী দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে কাজ করায় কয়েকজন যুবক আমিসহ আমার ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি বাড়ির ঘর ও প্রধান ফটক ভাংচুর করে।

এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মমিনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, মনোনয়ন পাওয়ার পর সন্ধ্যায় আমরা আনন্দ মিছিল নিয়ে এসেছি। কারা এ কাজ করেছে তা আমরা জানি না। তারা নিজেরাই আমাদের দোষারোপ করছে। আমরা এমন নোংরা রাজনীতি করি না।দিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমানসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আনিসুজ্জামান বলেন, কয়েকজনের বাড়ির সামনে গালিগালাজ ও পাথর ছোড়ার খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে। ছবি এবং ভিডিও সংগ্রহ করা। ভুক্তভোগীদের আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে

Tag :
About Author Information

MD Abdulla Haq

জনপ্রিয়

আলমডাঙ্গার নাগদাহ ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালন

চুয়াডাঙ্গায় আওয়ামী লীগ নেতা দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর।

Update Time : ০৭:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব সংবাদদাতা:চুয়াডাঙ্গায় দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করা হয়েছে। রোববার (২৬ নভেম্বর) রাতে চুয়াডাঙ্গা সদরের আলমডাঙ্গার মমিনপুর, কবিখালী ও ডাউকিতে পৃথক স্থানে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় ৯ নেতাকর্মীর বাড়ি, অফিস ও প্রতিষ্ঠানে হামলার খবর পাওয়া গেছে।হামলার শিকার নেতা-কর্মীদের অভিযোগ, দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য উপ-কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে প্রচারণা চালিয়েছেন তারা।রোববার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চূড়ান্ত করার পর এ হামলার ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। র‌্যাবের টহল রয়েছে।জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার মমিনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও কৃষক লীগের নেতা গোলাম ফারুক জোয়ার্দারের বাড়িতে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা বাড়িতে ইট-পাথর ছুড়ে কয়েকটি চেয়ার ও টেবিল ভেঙে ফেলে। ঘটনার সময় গোলাম ফারুক জোয়ারদার বাড়িতে ছিলেন না। এ সময় তার স্ত্রী নজু বেগম ও গৃহকর্মী আকাশ হোসেন বাড়িতে ছিলেন।গোলাম ফারুক জোয়ারদার অভিযোগ করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা-১ (আলমডাঙ্গা-সদর বিভাগ) আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য উপ-কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছিলাম।এ জন্য আমার বাড়িতে ও অফিসে হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা অনেক চেয়ার ভাংচুর করে। বাড়িতে তার রাগ ছিল। নব্য আওয়ামী লীগের লোকজন এ হামলা করেছে।এদিকে সন্ধ্যা ৭টার দিকে কবিখালী গ্রামে হুমায়নের বাড়িতেও হামলার খবর পাওয়া গেছে। কয়েকজন যুবক মোটরসাইকেলে তার বাড়ির সামনে গিয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। চেয়ার ভাঙা এবং টিন বন্ধ প্রস্রাব. হুমায়ন মমিনপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি মো. তিনি দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সমর্থকও।এ ছাড়া মহসিনের ওষুধের দোকান, সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য, আলমডাঙ্গা উপজেলার ডাউকি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম দিপু, ৪ নম্বর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জয়, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. ইউনিয়ন সৈয়দ ও বায়তুল, সিরাজুল ইসলাম, একই উপজেলার বেলগাছি মো. ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য শাহাদাত হোসেনের বাড়িতে হামলা হয়েছে।

ডাউকি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম দিপু বলেন, ‘আমি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা। প্রার্থী দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে কাজ করায় কয়েকজন যুবক আমিসহ আমার ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি বাড়ির ঘর ও প্রধান ফটক ভাংচুর করে।

এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মমিনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, মনোনয়ন পাওয়ার পর সন্ধ্যায় আমরা আনন্দ মিছিল নিয়ে এসেছি। কারা এ কাজ করেছে তা আমরা জানি না। তারা নিজেরাই আমাদের দোষারোপ করছে। আমরা এমন নোংরা রাজনীতি করি না।দিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমানসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আনিসুজ্জামান বলেন, কয়েকজনের বাড়ির সামনে গালিগালাজ ও পাথর ছোড়ার খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে। ছবি এবং ভিডিও সংগ্রহ করা। ভুক্তভোগীদের আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে