০২:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে

  • Update Time : ০৩:০২:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ১৭৩ Time View

চুয়াডাঙ্গা অফিস: জেলায় পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার আর এম ফয়জুর রহমান। গতকাল রবিবার পুলিশ পার্ক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জেলা পুলিশের আয়োজনে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে এ বিষয়টি জানান। এ সময় তিনি বলেন, চুয়াডাঙ্গায় ২৪ জন পুরুষ কনস্টেবল এবং চারজন নারী কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেয়া হবে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্বচ্ছ ও মেধা এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে শেষ করা হবে। সরকার নির্ধারিত ১২০ টাকা আবেদনপত্রের সঙ্গে পে-অর্ডারের মাধ্যমে জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে। এরপর ২০ ফেব্রুয়ারি চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইনে সকল আবেদনকারীর কাগজপত্র যাচাই-বাছাই এবং ২২ ফেব্রুয়ারি শারীরিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ শেষে উত্তীর্ণদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পুরো প্রক্রিয়াটি শেষ করা হবে প্রার্থীর শারীরিক সক্ষমতা ও মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে। এ সময় তিনি জেলাবাসীর সচেতন করতে জোর দিয়ে বলেন, যার চাকরি হবে তার মাত্র ১২০ টাকার বিনিময়ে চাকরি হবে। এখানে অন্য কোনো পন্থা কাজে আসবে না। এ ব্যাপারে কোনো তদবির বা সুপারিশ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না। মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আল আজাদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালন ও ডিআই-১ আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান।

জনপ্রিয়

নীলমনিগনজ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এস এস সি ৯৭ ব্যাচের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

চুয়াডাঙ্গায় পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে

Update Time : ০৩:০২:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

চুয়াডাঙ্গা অফিস: জেলায় পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার আর এম ফয়জুর রহমান। গতকাল রবিবার পুলিশ পার্ক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জেলা পুলিশের আয়োজনে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে এ বিষয়টি জানান। এ সময় তিনি বলেন, চুয়াডাঙ্গায় ২৪ জন পুরুষ কনস্টেবল এবং চারজন নারী কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেয়া হবে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্বচ্ছ ও মেধা এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে শেষ করা হবে। সরকার নির্ধারিত ১২০ টাকা আবেদনপত্রের সঙ্গে পে-অর্ডারের মাধ্যমে জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে। এরপর ২০ ফেব্রুয়ারি চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইনে সকল আবেদনকারীর কাগজপত্র যাচাই-বাছাই এবং ২২ ফেব্রুয়ারি শারীরিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ শেষে উত্তীর্ণদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পুরো প্রক্রিয়াটি শেষ করা হবে প্রার্থীর শারীরিক সক্ষমতা ও মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে। এ সময় তিনি জেলাবাসীর সচেতন করতে জোর দিয়ে বলেন, যার চাকরি হবে তার মাত্র ১২০ টাকার বিনিময়ে চাকরি হবে। এখানে অন্য কোনো পন্থা কাজে আসবে না। এ ব্যাপারে কোনো তদবির বা সুপারিশ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না। মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আল আজাদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালন ও ডিআই-১ আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান।