০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চলন্ত ট্রেনের দরজায় সেলফি তোলার সময় তারপর কার্পাসডাঙ্গা এক স্কুলছাত্র নিহত

  • MD Abdulla Haq
  • Update Time : ১২:০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩
  • ২৭ Time View

 

 

পাকশী হার্ডিং ব্রিজের পার হবার পর ট্রেনের দরজা থেকে মাথা বের করে সেলফি তোলার সময় ইনজামুল হক নামের এক শিক্ষার্থীর ট্রেন থেকে পড়ে ঘটনা স্থলেই নিহত হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পাকশীতে রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ইনজামুল হক (১৭) চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামের বিশিষ্ট চুল ব্যাবসায়ী ও একতা হেয়ার প্রসেসিং লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানের ছেলে।

ট্রেন যোগে সপরিবারে দামুড়হুদা কুতুবপুর নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশন বিকেল ৩টার সময় যায়। ঢাকাগামী যশোর বেনাপোল একপ্রেস পাকশী হার্ডিং ব্রিজের থেকে ৫০০ মিটার দূরে চলন্ত ট্রেন থেকে সেলফি তুলতে যায়। এ সময় ট্রেন থেকে পড়ে মারা যায় সে।

বিষয়টি চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল করিম ও কুতুবপুর গ্রামের স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক নিশ্চিত করেছেন।

ইশ্বরদী রেলওয়ে জংশন সহকারী পুলিশ সুপার ও এস আই হারুন অর রশিদ রুমেল ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করেন।

এস আই (উপ-পরিদর্শক) হারুন বলেন, ছেলেটি চলন্ত ট্রেনের দরজা থেকে সেলফি তোলার সময় ট্রেনে ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে নিহত হয়।

পরিবারের সূত্রে জানা যায়, রাতেই লাশ দাফন করা হবে।

Tag :
About Author Information

MD Abdulla Haq

চুয়াডাঙ্গায় প্রায় কোটি টাকার স্বর্ণসহ দর্শনার তাছলিমা আটক

চলন্ত ট্রেনের দরজায় সেলফি তোলার সময় তারপর কার্পাসডাঙ্গা এক স্কুলছাত্র নিহত

Update Time : ১২:০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০২৩

 

 

পাকশী হার্ডিং ব্রিজের পার হবার পর ট্রেনের দরজা থেকে মাথা বের করে সেলফি তোলার সময় ইনজামুল হক নামের এক শিক্ষার্থীর ট্রেন থেকে পড়ে ঘটনা স্থলেই নিহত হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পাকশীতে রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ইনজামুল হক (১৭) চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামের বিশিষ্ট চুল ব্যাবসায়ী ও একতা হেয়ার প্রসেসিং লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানের ছেলে।

ট্রেন যোগে সপরিবারে দামুড়হুদা কুতুবপুর নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশন বিকেল ৩টার সময় যায়। ঢাকাগামী যশোর বেনাপোল একপ্রেস পাকশী হার্ডিং ব্রিজের থেকে ৫০০ মিটার দূরে চলন্ত ট্রেন থেকে সেলফি তুলতে যায়। এ সময় ট্রেন থেকে পড়ে মারা যায় সে।

বিষয়টি চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল করিম ও কুতুবপুর গ্রামের স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক নিশ্চিত করেছেন।

ইশ্বরদী রেলওয়ে জংশন সহকারী পুলিশ সুপার ও এস আই হারুন অর রশিদ রুমেল ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করেন।

এস আই (উপ-পরিদর্শক) হারুন বলেন, ছেলেটি চলন্ত ট্রেনের দরজা থেকে সেলফি তোলার সময় ট্রেনে ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে নিহত হয়।

পরিবারের সূত্রে জানা যায়, রাতেই লাশ দাফন করা হবে।