০৪:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাংগাইলের নাগরপুরে আগুনে পুড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

  • Update Time : ১২:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০
  • ৪৬ Time View

টাংগাইলের নাগরপুরে আগুনে পুড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

সোলায়মান, নাগরপুর (টাংগাইল) থানা প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ভারড়া ইউনিয়নের রেহাই মিরকুটিয়ার আদাজান গ্রামের মো. জয়নাল আবেদীন ওরফে বাবুর স্ত্রী রোজিনা বেগম (২২) আগুনে পুড়ে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু বরণ করেছে।

রোজিনা উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের কোকাদাইর গ্রামের মজের আলীর মেয়ে। মৃতের ভাই মো. রমজান আলীর সূত্রে জানা যায়, ৪ বছর আগে ভারড়া ইউনিয়নের রেহাই মিরকুটিয়ার আদাজান গ্রামের নওসের আলীর ছেলে মো. জয়নূল আবেদীন বাবুর সাথে বিয়ে হয়েছিল। গতকাল দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টার সময় বাবু তার শাশুরীর মোবাইল ফোন দিয়ে তার বাড়িতে আসতে বলে, কন্তু রমজান এতো রাতে বোনের শশুরবাড়ি যাওয়া কারন জানতে চায়। পরে বাবু আবার ফোন করে বলে, কয়েলের আগুনে রোজিনার শরীর পুড়ে গেছে।
তাই রক্তের টানে রাতেই মা’কে নিয়ে বোনের শশুরবাড়ি গিয়ে দেখে আগুনে পোড়া বোনকে খাটে উপর রাখা হয়েছে। পরে বোন জামাতা বাবু বলে, গাড়ী খবর দেয়া হয়েছে, ওকে হাসপাতে নিতে হবে। গাড়ি এলে তাকে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে রোজিনাকে প্রথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিক্যালে রেফার্ড করা হলে, ঢাকা মেডিক্যালে নেয়ার কয়েক মিনিট আগে মৃত্যুবরণ করে। তবে কয়েল এর আগুনে কিভাবে একজন মানুষ পুরোপুরি পুড়ে গিয়ে মারা যেতে পারে, এ বিষয়টি আমি ঠিক বুজতে পারলামনা, বলেন মৃতের ভাই রমজান।
নাগরপুর থানা পুলিশ এ ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত মেয়ের বাবার বাড়ি গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজের মর্গে প্রেরন করে।
এ বিষয়ে নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলম চাঁদ বলেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত মেয়ের বাবার বাড়ি গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট প্রস্তুত ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Tag :
জনপ্রিয়

সব বাবাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

টাংগাইলের নাগরপুরে আগুনে পুড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

Update Time : ১২:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

টাংগাইলের নাগরপুরে আগুনে পুড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

সোলায়মান, নাগরপুর (টাংগাইল) থানা প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ভারড়া ইউনিয়নের রেহাই মিরকুটিয়ার আদাজান গ্রামের মো. জয়নাল আবেদীন ওরফে বাবুর স্ত্রী রোজিনা বেগম (২২) আগুনে পুড়ে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু বরণ করেছে।

রোজিনা উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের কোকাদাইর গ্রামের মজের আলীর মেয়ে। মৃতের ভাই মো. রমজান আলীর সূত্রে জানা যায়, ৪ বছর আগে ভারড়া ইউনিয়নের রেহাই মিরকুটিয়ার আদাজান গ্রামের নওসের আলীর ছেলে মো. জয়নূল আবেদীন বাবুর সাথে বিয়ে হয়েছিল। গতকাল দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টার সময় বাবু তার শাশুরীর মোবাইল ফোন দিয়ে তার বাড়িতে আসতে বলে, কন্তু রমজান এতো রাতে বোনের শশুরবাড়ি যাওয়া কারন জানতে চায়। পরে বাবু আবার ফোন করে বলে, কয়েলের আগুনে রোজিনার শরীর পুড়ে গেছে।
তাই রক্তের টানে রাতেই মা’কে নিয়ে বোনের শশুরবাড়ি গিয়ে দেখে আগুনে পোড়া বোনকে খাটে উপর রাখা হয়েছে। পরে বোন জামাতা বাবু বলে, গাড়ী খবর দেয়া হয়েছে, ওকে হাসপাতে নিতে হবে। গাড়ি এলে তাকে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে রোজিনাকে প্রথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিক্যালে রেফার্ড করা হলে, ঢাকা মেডিক্যালে নেয়ার কয়েক মিনিট আগে মৃত্যুবরণ করে। তবে কয়েল এর আগুনে কিভাবে একজন মানুষ পুরোপুরি পুড়ে গিয়ে মারা যেতে পারে, এ বিষয়টি আমি ঠিক বুজতে পারলামনা, বলেন মৃতের ভাই রমজান।
নাগরপুর থানা পুলিশ এ ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত মেয়ের বাবার বাড়ি গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজের মর্গে প্রেরন করে।
এ বিষয়ে নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলম চাঁদ বলেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত মেয়ের বাবার বাড়ি গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট প্রস্তুত ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।