১০:১৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দামুড়হুদায় আ’লীগের ১০ মনোনয়ন প্রত্যাশী উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশ:নৌকার মাঝি পরিবর্তন দাবি

  • MD Abdulla Haq
  • Update Time : ১১:০০:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩
  • ৩০ Time View

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে রাজনৈতিক নেতৃত্বের পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহবান জানিয়ে একই মঞ্চে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ১০ নেতৃবৃন্দ । শনিবার( ১৩ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩ টায় চিৎলা জুড়ানপুর মোড় চত্তরে দামুড়হুদা উপজেলা শাখা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র সাধারণ জনগণের মাঝে তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন নেতৃবৃন্দ। এক পর্যায়ে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ জনসভায় রুপ নেয়।দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মনজুর সভাপতিত্বে

অনুষ্ঠিত শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ। জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো: আব্দুল লতিফ অমল, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, কৃর্ষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তের সাবেক মহা পরিচালক আওয়ামী লীগ নেতা হামিদুর রহমান, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, দৈনিক সকালের সময়ের সম্পাদক ও প্রকাশক বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের মহাসচিব মানবাধিকার কর্মী নুর হাকিম, জেলা আওয়ামিলীগের সাবেক সহ সভাপতি নজরুল মল্লিক, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক জুড়ান পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, দামুড়হুদা উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, দর্শনা কলেজের সাবেক ভিপি এয়ার কমোডর আবুবকর, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্বাহী সদস্য এ্যাডঃ শাহরিয়ার কবীর, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক চুয়াডাঙ্গা জেলা জজকোর্টের এপিপি অ্যাড. আবু তালেব, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক এস এম মহসীন, দর্শনা সরকারি কলেজর সাবেক ভিপি জামাল উদ্দীন, উপস্থিত ছিলেন নতিপোতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মমিন মাস্টার, নাটুদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করীম, কৃর্ষি বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম, জুড়ানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব মাষ্টার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বদর উদ্দিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র লীগ নেতা সেলিম মল্লিক, অ্যাড. ইউনুস আলী, হাসাদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহবুব, জীবননগর ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি শামীম ফেরদৌস, জীবননগর উপজেলা সেচ্ছাসেক লীগের সভাপতি আবু মাসুম, কুড়ালগাছি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি কাফি উদ্দীন টুটুল, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক আশাদুল হক, দর্শনা পৌর ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ ফয়সাল, নতিপোতা ইউপির সাবেক সদস্য ৭ নং ওয়ার্ড সভাপতি নিয়াকত আলী, নাটুদহ ইউপির ৭ নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কলিম উদ্দীন, নাটুদহ ইউপির কৃষকলীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা মহাসিন আলী, হারুন অর রশীদ, আব্দুল হান্নান, আব্দুল মতিন,দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের অন্যতম নেতা হযরত আলী, জাহাঙ্গীর আলম (১) জাহাঙ্গীর আলম (২) ফজলুর রহমান ফজু, নাটুদহ ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, কুড়ালগাছি ইউপি কৃষক সভাপতি করিম শাহ, যুবলীগ নেতা লাল্টু, দামুড়হুদা উপজেলা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক বুলবুল আহমেদ, আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রী কলেজ ছাত্র লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ করিম ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা রাসেল আহমেদ মিঠু, দর্শনা কলেজ ছাত্র লীগনেতা হৃদয় হাসান, নাটুদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগনেতা ওয়াচকুরুণী খান আবীর উপজেলা প্রজন্মলীগ নেতা হাসান আল বাখার ডলারসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে
কালে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরে আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহবান জানান জাতীয় দৈনিক সকালের সময় পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো: নূর হাকিম তিনি বলেন,আমি রাজনীতি করি মানুষের জন্য। জনগনের কল্যাণের জন্যই আমার রাজনীতি। কখনো কোন অন্যায় করিনি। দুর্নীতিকে কখনো প্রশ্রয় দেইনি। নিজের কষ্টে উপার্জিত অর্থ মানুষের কল্যানে ব্যায় করি। আরও বলেন বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এবং জনকল্যাণে নিবেদিত থেকে কাজ করার লক্ষ্য নিয়েই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান। এছাড়া দারিদ্র্য, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত দেশ গঠনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আবার নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান।

 

বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা ২ আসন আওয়ামী লীগের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। দলের নেতাকর্মীরা হয়ে পড়েছেন দ্বিধাবিভক্ত। উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশ জনসভায় মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগে ১০ জন নেতারা বর্তমান এমপির বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম-স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলে বলেন, বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগ থেকে তিন’বার নির্বাচিত হলেও দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেননি। তার কারণে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে আওয়ামী লীগের মধ্যে দ্বিধাবিভক্তির সৃষ্টি হয়েছে। তার হাতে নৌকা নিরাপদ নয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন বর্তমান এমপি। এমপি পরিবারের সদস্যরাও বিতর্কিত হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন অপকর্মের কারণে। চুয়াডাঙ্গা -২ আসনে মানুষকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের বাইরে নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। তাই বর্তমান এমপিকে পরিবর্তন করে নতুন কোনো প্রার্থীকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিতে দলীয় প্রধানের কাছে দাবি জানান নেতারা।

বক্তারা বলেন, এই জনসমুদ্র প্রমাণ করে জনগণ বর্তমান এমপিকে চায় না। নৌকার মাঝি হিসেবে তিনি যোগ্য নন। , সেই সাথে আওয়ামী লীগকে দেউলিয়া করেছেন। তাকে আর চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে নৌকার প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় না সাধারণ মানুষ। ত্যাগী নেতাকর্মীদের তিনি ধ্বংস করে দিয়েছেন। তাই দলীয় নেতাকর্মীদের কলঙ্কমুক্ত করতে নতুন কাউকে সুযোগ দেয়ার দাবি জানান তারা। বর্তমান এমপি কে বাদ দিয়ে অন্য যেকোনো প্রার্থীকে মনোনয়ন দিলে সবাই একসাথে কাজ করে নৌকাকে বিজয়ী করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নেতৃবৃন্দ

Tag :
About Author Information

MD Abdulla Haq

জনপ্রিয়

শবে বরাতের নামাজের নিয়ম ও দোয়া

দামুড়হুদায় আ’লীগের ১০ মনোনয়ন প্রত্যাশী উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশ:নৌকার মাঝি পরিবর্তন দাবি

Update Time : ১১:০০:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে রাজনৈতিক নেতৃত্বের পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহবান জানিয়ে একই মঞ্চে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ১০ নেতৃবৃন্দ । শনিবার( ১৩ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩ টায় চিৎলা জুড়ানপুর মোড় চত্তরে দামুড়হুদা উপজেলা শাখা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র সাধারণ জনগণের মাঝে তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন নেতৃবৃন্দ। এক পর্যায়ে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ জনসভায় রুপ নেয়।দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মনজুর সভাপতিত্বে

অনুষ্ঠিত শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ। জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো: আব্দুল লতিফ অমল, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, কৃর্ষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তের সাবেক মহা পরিচালক আওয়ামী লীগ নেতা হামিদুর রহমান, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, দৈনিক সকালের সময়ের সম্পাদক ও প্রকাশক বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের মহাসচিব মানবাধিকার কর্মী নুর হাকিম, জেলা আওয়ামিলীগের সাবেক সহ সভাপতি নজরুল মল্লিক, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক জুড়ান পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, দামুড়হুদা উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, দর্শনা কলেজের সাবেক ভিপি এয়ার কমোডর আবুবকর, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্বাহী সদস্য এ্যাডঃ শাহরিয়ার কবীর, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক চুয়াডাঙ্গা জেলা জজকোর্টের এপিপি অ্যাড. আবু তালেব, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক এস এম মহসীন, দর্শনা সরকারি কলেজর সাবেক ভিপি জামাল উদ্দীন, উপস্থিত ছিলেন নতিপোতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মমিন মাস্টার, নাটুদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করীম, কৃর্ষি বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম, জুড়ানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব মাষ্টার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বদর উদ্দিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র লীগ নেতা সেলিম মল্লিক, অ্যাড. ইউনুস আলী, হাসাদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহবুব, জীবননগর ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি শামীম ফেরদৌস, জীবননগর উপজেলা সেচ্ছাসেক লীগের সভাপতি আবু মাসুম, কুড়ালগাছি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি কাফি উদ্দীন টুটুল, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক আশাদুল হক, দর্শনা পৌর ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ ফয়সাল, নতিপোতা ইউপির সাবেক সদস্য ৭ নং ওয়ার্ড সভাপতি নিয়াকত আলী, নাটুদহ ইউপির ৭ নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কলিম উদ্দীন, নাটুদহ ইউপির কৃষকলীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা মহাসিন আলী, হারুন অর রশীদ, আব্দুল হান্নান, আব্দুল মতিন,দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের অন্যতম নেতা হযরত আলী, জাহাঙ্গীর আলম (১) জাহাঙ্গীর আলম (২) ফজলুর রহমান ফজু, নাটুদহ ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, কুড়ালগাছি ইউপি কৃষক সভাপতি করিম শাহ, যুবলীগ নেতা লাল্টু, দামুড়হুদা উপজেলা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক বুলবুল আহমেদ, আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রী কলেজ ছাত্র লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ করিম ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা রাসেল আহমেদ মিঠু, দর্শনা কলেজ ছাত্র লীগনেতা হৃদয় হাসান, নাটুদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগনেতা ওয়াচকুরুণী খান আবীর উপজেলা প্রজন্মলীগ নেতা হাসান আল বাখার ডলারসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে
কালে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরে আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহবান জানান জাতীয় দৈনিক সকালের সময় পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো: নূর হাকিম তিনি বলেন,আমি রাজনীতি করি মানুষের জন্য। জনগনের কল্যাণের জন্যই আমার রাজনীতি। কখনো কোন অন্যায় করিনি। দুর্নীতিকে কখনো প্রশ্রয় দেইনি। নিজের কষ্টে উপার্জিত অর্থ মানুষের কল্যানে ব্যায় করি। আরও বলেন বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এবং জনকল্যাণে নিবেদিত থেকে কাজ করার লক্ষ্য নিয়েই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান। এছাড়া দারিদ্র্য, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত দেশ গঠনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আবার নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান।

 

বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা ২ আসন আওয়ামী লীগের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। দলের নেতাকর্মীরা হয়ে পড়েছেন দ্বিধাবিভক্ত। উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশ জনসভায় মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগে ১০ জন নেতারা বর্তমান এমপির বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম-স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলে বলেন, বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগ থেকে তিন’বার নির্বাচিত হলেও দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেননি। তার কারণে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে আওয়ামী লীগের মধ্যে দ্বিধাবিভক্তির সৃষ্টি হয়েছে। তার হাতে নৌকা নিরাপদ নয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন বর্তমান এমপি। এমপি পরিবারের সদস্যরাও বিতর্কিত হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন অপকর্মের কারণে। চুয়াডাঙ্গা -২ আসনে মানুষকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের বাইরে নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। তাই বর্তমান এমপিকে পরিবর্তন করে নতুন কোনো প্রার্থীকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিতে দলীয় প্রধানের কাছে দাবি জানান নেতারা।

বক্তারা বলেন, এই জনসমুদ্র প্রমাণ করে জনগণ বর্তমান এমপিকে চায় না। নৌকার মাঝি হিসেবে তিনি যোগ্য নন। , সেই সাথে আওয়ামী লীগকে দেউলিয়া করেছেন। তাকে আর চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে নৌকার প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় না সাধারণ মানুষ। ত্যাগী নেতাকর্মীদের তিনি ধ্বংস করে দিয়েছেন। তাই দলীয় নেতাকর্মীদের কলঙ্কমুক্ত করতে নতুন কাউকে সুযোগ দেয়ার দাবি জানান তারা। বর্তমান এমপি কে বাদ দিয়ে অন্য যেকোনো প্রার্থীকে মনোনয়ন দিলে সবাই একসাথে কাজ করে নৌকাকে বিজয়ী করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নেতৃবৃন্দ