১১:৪৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় টানা ১১ দিন পর স্বস্তির বৃষ্টি

  • Update Time : ১০:৫৮:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩
  • ১০৬ Time View

 

তাপদাহ, ভ্যাপসা গরম ও লোডশেডিংয়ে যখন জনজীবন বিপর্যস্ত ঠিক তখন টানা ১১ দিন পর চুয়াডাঙ্গায় নেমেছে স্বস্তির বৃষ্টি। এই গরমে সাধারণ মানুষ ছিল অসহায়। ঘরের বাইরে বের হওয়া ছিল কষ্টকর। বৃষ্টি শুরুর পর থেকে জেলার আবহাওয়া স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

 

শুক্রবার দুপুর ৩টার আগেই বৃষ্টি শুরু হয়। শুক্রবার এ জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট ধরে বৃষ্টি ঝরে। বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ১৯ মিলিমিটার।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র পর্যবেক্ষক রাকিবুল হাসান বলেন, টানা কয়েক দিন চুয়াডাঙ্গায় মাঝারি থেকে তীব্র তাপদাহ অব্যাহত ছিল। জেলায় ২৮ মে সর্ব শেষ বৃষ্টি হয়। ২৯ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত তাপদাহ চলমান ছিল। শুক্রবার দুপুরের আগে চুয়াডাঙ্গায় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সাথে ঝড়ো বাতাস আর বজ্রপাত হয়। টানা ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট পর বৃষ্টি থামে। এতে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড হয়েছে।

বাতাসে আদ্রতা বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম অনুভূত হয়েছে বেশি। শুক্রবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গরমে পাশাপাশি লোডশেডিং বেড়া যাওয়ায় দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছিল। বৃষ্টি শুরু হওয়ায় আবহাওয়া অনেকটা স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

Tag :
জনপ্রিয়

পান বরজে আগুন, পুড়ে শেষ হলো কৃষকের স্বপ্ন

চুয়াডাঙ্গায় টানা ১১ দিন পর স্বস্তির বৃষ্টি

Update Time : ১০:৫৮:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩

 

তাপদাহ, ভ্যাপসা গরম ও লোডশেডিংয়ে যখন জনজীবন বিপর্যস্ত ঠিক তখন টানা ১১ দিন পর চুয়াডাঙ্গায় নেমেছে স্বস্তির বৃষ্টি। এই গরমে সাধারণ মানুষ ছিল অসহায়। ঘরের বাইরে বের হওয়া ছিল কষ্টকর। বৃষ্টি শুরুর পর থেকে জেলার আবহাওয়া স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

 

শুক্রবার দুপুর ৩টার আগেই বৃষ্টি শুরু হয়। শুক্রবার এ জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট ধরে বৃষ্টি ঝরে। বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ১৯ মিলিমিটার।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র পর্যবেক্ষক রাকিবুল হাসান বলেন, টানা কয়েক দিন চুয়াডাঙ্গায় মাঝারি থেকে তীব্র তাপদাহ অব্যাহত ছিল। জেলায় ২৮ মে সর্ব শেষ বৃষ্টি হয়। ২৯ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত তাপদাহ চলমান ছিল। শুক্রবার দুপুরের আগে চুয়াডাঙ্গায় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সাথে ঝড়ো বাতাস আর বজ্রপাত হয়। টানা ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট পর বৃষ্টি থামে। এতে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড হয়েছে।

বাতাসে আদ্রতা বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম অনুভূত হয়েছে বেশি। শুক্রবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গরমে পাশাপাশি লোডশেডিং বেড়া যাওয়ায় দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছিল। বৃষ্টি শুরু হওয়ায় আবহাওয়া অনেকটা স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।