০৩:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

  • Update Time : ১২:১৮:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩
  • ৫৪ Time View

 

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বাবর আলিকে নামের এক ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহতের লাশ চুয়াডাঙ্গায় সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে। বৃহস্পতিবার রাতে কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত বাবর আলি (৪৫) দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা গ্রামের ছাত্তার আলির ছেলে।
দর্শনা থানার ওসি তদন্ত আমানউল্লাহ বলেন, দর্শনা ধান্যঘরা গ্রামের বাবার আলি প্রতিদিনের মতো রাতে ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিলেন। এ সময় তিন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত বাড়িতে প্রবেশ করে বাবর আলিকে গলায় কোপ দেয়। রক্তাক্ত জখম হলে তাকে স্বাজনরা উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বাবর আলিকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ হত্যা রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে। হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে। এখনো কোনো মামলা হয়নি।নিহতের স্ত্রী জানান, লিচুর বিক্রির চার লাখ টাকা পাওনা ছিল একজনের কাছে। রাতে ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। সন্ধায় তিন ব্যাক্তি বাড়িতে এসে স্বামীকে হুমকি দেয়। তারাই এ হত্যার সাথে জড়িত থাকতে পারে। পুলিশ তদন্ত করলেই অপরাধী সনাক্ত হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতেলর জুনিয়র সার্জারি কনসালটেন্ট এহসানুল হক তন্ময় বলেন, বাবর আলির গলায় কোপের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের মৃত্যু হয়েছে।

Tag :
জনপ্রিয়

কৃতি শিক্ষার্থীর কৃতিত্বে কার্পাসডাঙ্গার ইউপি চেয়ারম্যান এর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও উপহার প্রদান

দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

Update Time : ১২:১৮:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩

 

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বাবর আলিকে নামের এক ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহতের লাশ চুয়াডাঙ্গায় সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে। বৃহস্পতিবার রাতে কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত বাবর আলি (৪৫) দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা গ্রামের ছাত্তার আলির ছেলে।
দর্শনা থানার ওসি তদন্ত আমানউল্লাহ বলেন, দর্শনা ধান্যঘরা গ্রামের বাবার আলি প্রতিদিনের মতো রাতে ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিলেন। এ সময় তিন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত বাড়িতে প্রবেশ করে বাবর আলিকে গলায় কোপ দেয়। রক্তাক্ত জখম হলে তাকে স্বাজনরা উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বাবর আলিকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ হত্যা রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে। হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে। এখনো কোনো মামলা হয়নি।নিহতের স্ত্রী জানান, লিচুর বিক্রির চার লাখ টাকা পাওনা ছিল একজনের কাছে। রাতে ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। সন্ধায় তিন ব্যাক্তি বাড়িতে এসে স্বামীকে হুমকি দেয়। তারাই এ হত্যার সাথে জড়িত থাকতে পারে। পুলিশ তদন্ত করলেই অপরাধী সনাক্ত হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতেলর জুনিয়র সার্জারি কনসালটেন্ট এহসানুল হক তন্ময় বলেন, বাবর আলির গলায় কোপের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের মৃত্যু হয়েছে।